সুখী হয়েও মানুষ অসুখী

আসলে আমরা সবাই সুখী, কিন্তু আমরা বুঝতে পারি না। দিন-রাত সব সময় ঘুরি সুখের পেছনে; আমরা যে সুখের ভেতরেই আছি সেটা খেয়াল করি না।

যখন ভার্সিটিতে থাকি তখন মনে হয় কবে বাড়ি যাব, কবে বাড়ি যাব! মন খালি ছটফট করতে থাকে। আবার বাড়ি গেলেও মন টিকে না। ভার্সিটিতে ফেরার জন্য অস্থির হয়ে উঠি।

একইভাবে, যখন হাই স্কুলে পড়তাম তখন মনে হতো প্রাইমারীই তো ভাল ছিল। কত সুখে ছিলাম, ভাল স্টুডেন্ট ছিলাম, সবসময় ফাস্ট হতাম। কলেজে এসেও দারুন মিস করতে থাকি হাই-স্কুল জীবনকে। মনে হয় এটাই ছিল জীবনের সর্বশ্রেষ্ঠ সময়।

ভার্সিটিতে এসে দারুন মিস করছি কলেজ লাইফকে। মনে হচ্ছে একদম ভাল লাগে না। কলেজ লাইফ কত সুন্দর ছিল! কত আন্তরিক বন্ধু ছিল। ভার্সিটি লাইফ একটা লাইফ হইলো! X(

আসলে যায় দিন ভাল, আসে দিন খারাপ। আমরা সবাই সুখেই আছি কিন্তু আমরা বুঝতে পারি না।

নোটঃ এই লেখাটা ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১০ রাত ১:২২ টার সময় সামহোয়্যারইন ব্লগে প্রকাশ করেছিলাম। এই ব্লগে এটা ব্যাক-আপ পোস্ট।

18 responses to “সুখী হয়েও মানুষ অসুখী

  1. খুবই ভালো কথা বলেছ ভাইজান। সুখ আসলে হৃদয়ে থাকে, বিশ্বাসের মধ্যেই থাকে। আল্লাহ আমাদের যেই অবস্থাতে রেখেছেন, তাতেই সুখী অনুভব করে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে হয় তার প্রতি… অন্তর ঠান্ডা থাকে🙂

    আমার স্কুল লাইফ, কলেজ লাইফ, ইউনি লাইফে এরকমই গেসে। যখন সময়টা পার করেছি, তখনকার চাইতে পরে সেইটা অনেক বেশি ভালো লেগেছে। কারণ আমাদের দ্বায়িত্ব দিন দিন বাড়তে থাকে। তুমি নিজেই ক’দিন পর টের পাবা…😛

  2. আমার কাছে মনে হয়, আমার আগের দিনগুলোর চেয়ে পরের দিনগুলো আনেক ভাল। কারণ, আল্লাহ তাআলা আমাকে মদীনা মুনওয়ারায় চারটি বছর কাটানোর সুযোগ দিয়েছেন। মদীনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুবাদে। এ সময়টা আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ সময় বলে মনে করি। যদিও এখনকার প্রবাসের চাকুরী জীবনে গ্রামের অনেক স্মৃতি মনের ‍পাতায় উঁকি দেয় অনবরত।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s