একটি ব্লগ কিংবা ফেইসবুক স্ট্যাটাসের গল্প

১.
সময় খুব দ্রুত বদলায়। আমার এখনও মনে আছে এইতো সেদিন আমি কম্পিউটার ল্যাবের পরীক্ষায় বসে বসে কেঁদেছি। মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের উপর পরীক্ষা। কি প্রশ্ন এসেছিল তার সবগুলা মনে করতে না পারলেও কিছু কিছু মনে পড়ে। যেমনঃ বুলেট, নাম্বারিং সংযুক্ত করা; হাইপারলিঙ্ক করা ইত্যাদি। কিচ্ছু পারিনি আমি। পারবোই বা কিভাবে? আগে তো কখনও কম্পিউটারই ছুয়ে দেখিনি, কম্পুটা অন-অফ করতেও জানতাম না। স্যার যখন কি করেছি চেক করতে আসলো, বোকার মতো কাঁদতে আরম্ভ করলাম। আমার কান্না দেখে স্যারও ভড়কে গেলেন। স্যারকে জিজ্ঞেস করলাম, স্যার এগুলো শেখা যায় এরকম ভাল কোন বইয়ের নাম বলেন প্লিজ, আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো শিখতে। স্যার বললেন এগুলো আসলে বই পড়ে শেখা যায়না, মাঝে মাঝে কম্পিউটার সেন্টারে এসে প্র্যাকটিস করো, তাহলেই হবে।

২.
আমি খুব ঝামেলায় না পড়লে আব্বু-আম্মুর কাছে কখনও কিছু চাইনা। এখন পর্যন্ত সম্ভবত ২ টা জিনিস চেয়েছি তাদের কাছ থেকে। ১. এটা গোপন থাক আপাতত, ২. একখান কম্পু। রাগে কম্পু নিয়ে অনেক বেশি গুঁতাগুঁতি করতে শুরু করলাম। অভ্র’র খবরটা প্রথম পেয়েছিলাম দূর্লভের কাছ থেকে। হঠাৎ কম্পিউটার সেন্টারে একদিন দেখি মোসলেহ বাংলা লেখা পড়ছে। আশ্চর্য হয়ে গেলাম। কম্পিউটারে বাংলা লেখা পড়া যায়! পরে জানলাম সেটা সামহোয়্যারইন ব্লগ। একাউন্ট খুললাম। প্রথমদিকে ব্লগের ধারাচারা বুঝতে অনেক সময় লাগলো। সাধারণত বইয়ের ডাউনলোড লিঙ্ক চেয়ে সাহায্য পোস্ট পোস্টাতাম তখন। দেখলাম বেশ কয়েকজন হেল্প করছে লিঙ্ক দিয়ে। ব্লগের প্রতি কেমন জানি একটা ভাল লাগার সৃষ্টি হলো তখন থেকেই।

অনেক কষ্ট করে ব্লগ লিখতাম তখন। ভার্চুয়্যাল কিবোর্ডে মাউস দিয়ে একটা একটা করে ক্লিক করে, অনেক সময় লাগতো। এমনও হয়েছে মাসে এক্সট্রা ৮০০-৯০০ টাকা বিল এসেছে ল্যাবে। বুঝলাম এটার চেয়ে ইন্টারনেট নিয়ে নেওয়াই ভাল আমার। কাকতালীয়ভাবে সেদিন থেকেই P-6 এর অফার আসলো, নিয়ে নিলাম। আসক্তের মতো ব্লগে থাকি তখন। ২-৪ দিনেই শেষ হয়ে যায় পি-সিক্স। প্রায় সব ভাল ভাল লেখকের লেখা পড়া শেষ। তামিম ইরফানের বান্দরবেলা আর নাফিস ইফতেখারের ক্ল্যাসিক পোস্টগুলোর সেইরকম ফ্যান তখন আমি। তৈয়ব ভাই, মেহেদী আকরাম ভাইয়েরা তখন ওয়ার্ডপ্রেসে লিখতেন। উনাদের দেখাদেখি আমিও একাউন্ট খুললাম ওয়ার্ডপ্রেসে। হাবিজাবি যা পাই তাই পোস্টাই এখানে। কপি-পেস্ট করতাম অনেক। পরে যখন বুঝলাম এটা ঠিক না, তখন কপি করা সব পোস্ট ড্রাফট করে দিলাম।

ধীরে ধীরে ম্যাচুরিটি আসলো। বুঝলাম এই দুনিয়াটাকে আমি আসলে যেরকম ভাবছি সেরকম না। পরিচয় হলো অনেকের সাথে। বুঝলাম এইভাবে ব্লগে ছুটাছুটি করাটা বোকামি ছাড়া কিছুই না। কিন্তু এতদিনের অভ্যাস কি আর ছাড়া যায়! বুঝলাম এটাকে ছাড়তে কষ্ট হবে। তাই ব্লগটাকে ডায়েরীর মতো ভাবতে লাগলাম। আগে যেগুলো দায়েরীতে লিখতাম, এখন সেগুলো ব্লগে লিখি। কিন্তু ততদিনে আমার ব্লগ আর ব্লগ নাই, ব্লগের মাত্রাকে ছাড়িয়ে গেছে। আমার একটা পোস্টেই আমার চারপাশের মানুষগুলো আমার খবর পেয়ে যায়। যে আমি কলেজ লাইফে এত মোবাইল এডিক্টেড ছিলাম, সেই আমি আজ মোবাইল ছুয়েও দেখিনা। ১০-১২ দিন পর মিসডকলগুলো দেখে ব্যাক করতে থাকি। হয়তো এরকম ব্লগের প্রতিও আকর্ষন থাকবেনা কিছুদিন পর, আকর্ষন অবশ্য অলরেডী কমতে আরম্ভ করেছে। সম্ভবত আর বেশিদিন ব্লগে সেভাবে থাকা হবেনা, দেখা যাক কি হয়।

ওহ হো ফেইসবুকের কথা তো কিছু লেখাই হলোনা! থাক আরেকদিন লেখবো, সেটা নিয়ে আরেকটা পোস্ট লিখা যাবে। এখন লিখতে আর ভাল লাগেনা।

31 responses to “একটি ব্লগ কিংবা ফেইসবুক স্ট্যাটাসের গল্প

    • আগে ভাবতাম পুরনো ব্লগাররা নাই কেন? এখন বুঝতে পারছি। আসলে আগ্রহ ধরে রাখাটা কঠিন, তবে হয়তো পুরোপুরি ছাড়াটা কঠিন হয়ে যাবে।

  1. ১ নাম্বার জিনিসটা কি মুবিল ফোন ? “হা” অথবা “না” উত্তর দেন, যেহেতু সিক্রিট জিনিস ।

    পিসিক্স ইউস করছেন কবে থেকে ?

    আর আপ্নের এই ব্লগের বয়স কত হল ? কত তারিখ থেকে শুরু করেছিলেন ?

    • না, মোবাইল না। রনি এত ছোটখাট জিনিস চায়না। এইটা অনেক বড় জিনিস। অর্ধেক পেয়েছি, অর্ধেক বাকী আছে। আরও বড় হতে হবে আমাকে সেটা পেতে হলে।
      পিসিক্স যেদিন থেকে চালু হয়েছে, সেদিন থেকেই ইউজ করি। ব্লগের বয়স তো মনে নাই, ড্রাফটের পোস্টগুলো দেখলে বোঝা যাবে, তবে প্রায় বছর দুয়েক হবে।

  2. মিল পেলাম। আসলে ব্লগে ঘুরে যে কিছু হবে না, ব্যাপারটা তা না। স্পেসিফিক কিছু ব্লগ আছে, যেখানে ঘুরাটা ফলদায়ক। সচল বলি, সামইন বলি- এরকম কিছু। তবে নীরব পাঠক থাকাটাই শ্রেয়। গা বাঁচিয়ে, পক্ষ না নিয়ে।

  3. রনি, ভালো তো???? কয়েকদিনের ব্যস্ততার জন্য নেটে বসতে পারিনি। তাই….। এখন আমার দুটো কাজ তোমাকে করে দিতে হবে।
    ১. আমার পি-সিক্সের ব্যালেন্স প্রায় ১৫০০ মে.বা. আর মেয়াদ ১০ তারিখ পর্যন্ত। আমি এর মধ্যে ব্যালেন্সটা শেষ করতে চাই। এর জন্য কিছু নাটক, সিনেমা ও উপন্যাস ডাউনলোড করতে চাই। কিন্তু পারছি না। তুমি কি কোন হেল্প করতে পারবে????

    ২. আমাকে সুন্দর করে একটা ব্লগ সাইট সাজিয়ে দাও প্লীজ।

    আর একটা পরামর্শ চাই……….. আমি সামহোয়ার ইন ব্লগে অতিথি/ নতুন ব্লগার হিসেবে লিখছিলাম । কিন্তু এখন আর একসেস করতে পারছি না। কী করা যায় বলো তো????

    • আপনার ব্লগ বানালাম।
      দেখেন তো ঠিক আছে কিনা? ফেইসবুকে ইউজারনেম আর পাসওয়ার্ড ম্যাসেজ করে দিয়েছি। কোন সমস্যা হলে জানাবেন।

      এখানে অনেক বই আছে। ডাউনলোড করেন ইচ্ছামতো। এখান থেকে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারেন।

      সামহোয়্যারইনে প্রথমে কিছুদিন ওয়াচে রাখা হয়, তারপরে সেফ করা হয়। কিছুদিন পরে সেফ করে দিবে।

  4. এখন রাত একটা ১:৪০ মিনিট।
    অংক করে ১টার সময় শুতে গেছি কিন্তু ৩০ মিনেটেও ঘুম আশার নাম নাই। তাই আমার মোবাইলটা দিয়ে শুয়ে শুয়ে আপনার ব্লগ ভিজিট করলাম।
    করেই মন্তব্য করার ইচ্ছা হল। তাই একটু নেটে বসলাম (রাগ হয়েন না, পরিক্ষার সময় নেটে বসলাম বলে)।
    এই যা যেটা বলতে এসেছিলাম তা তো মনে নাই। শুধু এটা মনে আসছে, আপনার ডাইরি স্টাইলে ব্লগ লেখার জন্য ভিজিটর মনে হয় বেশী পান।
    আমিও তাই চেষ্টা করতেছি।
    দেখি আপনার মত ভিজিটর পাই কি না?

    আপনার একটা জিনিস আমার আজব লাগে আপনি………?

  5. রনি ভাই……….
    ভাল লাগল…..
    কাকে দেখতে ইচ্ছা করে আমি মনে হয় বুঝতে পারছি………..!!!!
    আপনার মত আমার অভ্যাস হয়েছে……আমি ত্ত সারাদিন ব্লগ আর নেটে বসে থাকি…….
    পড়াশুনা কিছু হচ্ছে না……মাথার মধ্যে শুধু ব্লগ আর ব্লগ………….!!!!!!!!!!!!!!

  6. ব্লগে নিয়মিত লেখালেখি করলে মনে হয় বছর দুয়েকের মধ্যেই একটা অবসন্নতা চলে আসে। আমি নিয়মিত লিখি না, শুধু পড়ি। এ জন্যই বোধহয় এখনও তেমন কোন অবসন্নতা আসেনি। দেখা যাক, কত দিন এই ভাল লাগা থাকে।

    তারপর খবর কি আপনার? ভাল আছেন?

    • 😛😛😛
      ঠিক। কিন্তু আপনি লেখেন না কেন?
      আপনার লেখা আমার খুব ভাল লাগে।
      আছি ভাই আল্লাহর রহমতে একরকম।
      দু;খের বিষয় আজও আপনার পরিচয় উদ্ধার করতে পারলাম না।😦
      আপনি কেমন আছেন?

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s