এক্সামলিপি ও উল্টা-পাল্টা চিন্তা

লিখেছেন রনি পারভেজ, ০৭ ই মে, ২০১০ রাত ৯:১৮

শেয়ার করুন: Facebook

পরীক্ষা শুরু হয়েছে গত ৪ ই মে। প্রথমটা ছিল টেলিকম। মোটামুটি হয়ছে। তারপর Random Signal Processing. এই সাবজেক্টটাতে বেশ ভাল মার্কস পেয়েছিলাম মিড টার্মে (৭৫ এর ভেতর ৭২)। একটু চেষ্টা করলে সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষাটাও ভাল হতো। কিন্তু আমার পরীক্ষার আগে আনমনা হবার সমস্যা আছে।

এমনিই তো আমার শুধুমাত্র পরীক্ষার আগে পড়ার অভ্যাস, তার উপর এখন সেটাও করিনা। নতুন অসুখ হিসেবে যোগ হয়েছে পরীক্ষার আগে আনমনা হওয়া। হঠাৎ করে একেকটা খেয়াল চাপে মাথার ভেতর। ব্যস, সেটা না করা পর্যন্ত মাথা ঠিক হয় না। প্রচন্ড জেদী হয়ে গেছি। গত পরশু হঠাৎ মাথায় ভূত চাপলো বাংলাদেশের খেলা দেখব। তো ফাইনাল। প্ল্যান করলাম সন্ধ্যায় নাস্তা করে এসে পড়তে বসবো। ১১ টার ভেতর পড়া কমপ্লিট করে খেলা দেখব।

ঢাকা কাবাবে নাস্তা করতে গেলাম আমি আর মিশুক। সেখানে কে যেন বললো খেলা সন্ধ্যা ৭ টায়। প্ল্যানগুলো এলোমেলো হলো সেই থেকে। এসে আর কিছুতেই মন বসলো না। পড়া বাদ। খেলা দেখতে গেলাম ।বাংলাদেশ জিতবে আশা নিয়ে খুব এক্সাইটেড ছিলাম । বাংলাদেশ হারলো। তখনও কিছুই পড়া হয়নি। অথচ পরীক্ষা সকাল ৯.৩০ এ। হঠাৎ কি মনে করে পড়তে বসলাম। পড়া লুকোচুরি খ্যালে ঘুমের সাথে। শেষপর্যন্ত একবার করে চোখ বুলালাম কোন মতে। কিছু কিছু পড়া জিনিস দেখে যেতে পারলাম না।

এক্সাম নিয়ে আপসেট হওয়া বন্ধ করে দিয়েছি ফার্স্ট সেমিস্টারের পর থেকেই। কোনরকম একটা রেজাল্ট হলেই হলো। আগের মতো খুব ভাল করার প্রবল ইচ্ছা নাই। যা আছে তাতে সন্তুষ্ট। এটা ধরে রাখতে পারলেই মোর দ্যান এনাফ।

তবে মাঝেমাঝে খারাপ লাগে। এটা কন্ট্রোল করা দরকার। সেদিন জুনায়েদ স্যার ক্লাশে যখন সবাইকে হায়ার স্টাডিজের জন্য বাইরে জাবার জন্য সবাইকে প্রস্তুত থাকতে বলছিল সেদিন হঠাৎ করে যেন কান্না আসার মতো লাগছিল। অনেকদিনের অভ্যাস এতো সহজে যায় নি।

এটা তাড়ানো দরকার। সবাই বিদেশে যাবে, অনেক টাকা-পয়সা কামাবে, সো হট? আমি কি খারাপ আছি? নাই তো! তাহলে আমার বিদেশ যাবার কি দরকার? সবাই যাবে যাক। আমার দরকার নাই। কোনরকম দুটো খেতে পেলেই আমি সুখী। একটা মানুষের ভালভাবে বাঁচার জন্য এতকিছুর দরকার নাই।

তারপরও খারাপ লাগে মাঝেমাঝে। আব্বু-আম্মুর শখ আমি বাইরে যায়। কিন্তু আমার যে যেতে ইচ্ছে করেনা! আমি যেতে চাইনা…

সেদিন শ্রাবনীকে বলেছিলাম আমি ভবিষ্যতে চাকুরী করব না। গ্রামে যাব। সেখানেই থাকব। গ্রামই আমার ভাল লাগে। হঠাৎ করে শকড হয়ে গেছিল সে। পরে ম্যাসেজে বলে আপনি যেভাবেই হোক হায়ার স্টাডিজের জন্য বাইরে যান… আমি রিপ্লাই দিইনি।

তার মানে চারপাশে সবাই চাইছে…… কিন্তু আমার যে ভাল্লাগেনা… আমি চাইনা অতকিছু… কম খাব কম বুঝব… ব্যস………

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s